Breaking News
Home | বিশেষ প্রতিবেদন | বৈঠকে মন নেই এমপিদের

বৈঠকে মন নেই এমপিদের

সংসদীয় কমিটির বৈঠকে মন নেই সংসদ সদস্যদের। নিয়ম মেনে প্রতি মাসে বৈঠকের কথা থাকলেও তা মানছেন না তারা। এ ক্ষেত্রে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনাও উপেক্ষিত হচ্ছে বলে জানা গেছে।
সংসদের কার্যবিধি অনুযায়ী, প্রতি মাসে কমপক্ষে একটি করে সংসদীয় কমিটির বৈঠক করার নিয়ম থাকলেও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চলতি মেয়াদে ক্ষমতা গ্রহণের পর প্রতি মাসে একাধিক বৈঠক করার নির্দেশ দেন। প্রতি মাসে একটি করে বৈঠক করলেও গত সাড়ে চার বছরে প্রত্যেক কমিটির কমপক্ষে ৫৩টি বৈঠক হওয়ার কথা। কিন্তু দুটি কমিটি ছাড়া আর কেউ সে নির্দেশনা মানেনি।

সূত্র জানায়, সংসদের ৫০টি সংসদীয় কমিটির মধ্যে ৪৫টির প্রতি মাসে একটি করে বৈঠক করার বিধান রয়েছে।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সর্বশেষ বৈঠক হয়েছিল গত ১১ অক্টোবর। প্রায় সাড়ে ছয় মাস পর বৃহস্পতিবার (৩০ মে) এ কমিটির বৈঠক আহ্বান করা হয়েছে। এছাড়া কমিটি চলতি মেয়াদে মাত্র ১৬টি বৈঠকে করেছে।
কমিটির সভাপতি সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডা. দীপু মনি। এ ব্যাপারে তার সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তা সম্ভব হয়নি। তবে কমিটির জ্যেষ্ঠ সদস্য সাবেক বাণিজ্যমন্ত্রী ফারুক খান বলেন, ‘বৈঠক না হওয়াটা দুঃখজনক। এখানে আমাদের করার কিছু নেই। কারণ সংসদীয় কমিটির সভা আহ্বানের এখতিয়ার সভাপতির। তিনি ব্যস্ত থাকায় হয় তো সভা ডাকেননি।’

সূত্র জানায়, বিগত সাড়ে চার বছরে সরকারি হিসাব সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি ও নৌ-পরিবহণ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি বিধি মেনে বৈঠকে করেছে। সরকারি হিসাব সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি ৮২টি ও নৌ-পরিবহন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটি বৈঠক করে ৫৪টি।
সংসদ থেকে পাওয়া তথ্য-উপাত্ত বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে, বিগত ছয় মাসের মধ্যে সবচেয়ে বেশি বৈঠক হয়েছে চলতি বছরের জানুয়ারিতে। এ মাসে চারটি সাব কমিটির বৈঠকসহ ৩৭টি বৈঠক হয়েছে। এছাড়া গত ডিসেম্বরে তিনটি সাব কমিটিসহ ২৯টি, ফেব্রুয়ারিতে একটি সাব কমিটিসহ ২৭টি, মার্চে দুটি সাব কমিটিসহ ১৮টি এবং এপ্রিলে তিনটি সাব কমিটিসহ ৩২টি বৈঠক হয়েছে।

এছাড়া স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি ২১টি বৈঠক করেছে। বাণিজ্য ২৬, স্বাস্থ্য ২১, শিক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির মতো গুরুত্বপূর্ণ কমিটি বৈঠক করেছে মাত্র ২৮টি।
স্বরাষ্ট্রের মতো গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় কমিটির সর্বশেষ বৈঠক হয় গত ২৫ জানুয়ারি। এছাড়া ১ এপ্রিল স্বাস্থ্য, ২৯ মে শিক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

ডেপুটি স্পিকার অ্যাডভোকেট ফজলে রাব্বী মিয়া এ প্রসঙ্গে জাগো নিউজকে বলেন, ‘সংসদকে শক্তিশালী করতে নিয়মিত বৈঠকের বিকল্প নেই। সংসদীয় কমিটির সভাপতিরাই ভালো বলতে পারবেন তারা কেন সভা করেন না?’
ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি) পরিচালিত এক গবেষণা প্রতিবেদনে দেখানো হয়েছে, বিধি অনুযায়ী কমিটিগুলো প্রতি বছর একটি প্রতিবেদন প্রকাশের কথা থাকলেও তা হয়নি। সংসদীয় কমিটির সুপারিশগুলোও বাস্তবায়ন হয় না। কমিটির প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী সুপারিশের মধ্যে ৪১ শতাংশ বাস্তবায়িত হয়েছে।
এইচএস/এএইচ/এমএআর/পিআর

About admin

Check Also

‘ব্যাংক লুটের কারিগর’

চট্টগ্রামের ব্যবসায়ী মো. শাহাবুদ্দিন আলম। ভাগ্যগুণে দেশের দুই ডজন ব্যাংক থেকে ঋণ পেয়েছেন। ব্যাংকগুলোও বাছবিচার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *