Home | Uncategorized | এক বছর পর তোলা হলো ছাত্রলীগ নেতার লাশ

এক বছর পর তোলা হলো ছাত্রলীগ নেতার লাশ

আজ বুধবার দুপুরে ময়নাতদন্তের জন্য উত্তোলন করা হয় ছাত্রলীগ নেতা ইমতিয়াজ হাসান রুবেলের লাশ। ছবি : এনটিভি
দাফনের ৩৭৯ দিন পর তোলা হলো সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া সরকারি আকবর আলী কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ইমতিয়াজ হাসান রুবেলের লাশ।

আজ বুধবার দুপুরে সিরাজগঞ্জের জেষ্ঠ্য বিচারিক হাকিম আদালতের নির্দেশনায় ময়নাতদন্তের জন্য কবর থেকে ইমতিয়াজের লাশ তোলা করা হয়।

লাশ উত্তোলনের সময় সিরাজগঞ্জের জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম আদালতের নির্দেশনায় উল্লাপাড়ার সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. ফারুক সুফিয়ান ও সিরাজগঞ্জ থানা পুলিশ উপস্থিত ছিলেন।

এ ছাড়া উপস্থিত ছিলেন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসা কর্মকর্তা ডা. মোস্তাফিজুর রহমান, উল্লাপাড়া থানার উপপরিদর্শক শামছুল আলম ও খাইরুল ইসলাম।

জানা যায়, ২০১৬ সালের ২৯ নভেম্বর বগুড়া-পাবনা মহাসড়কে সিরাজগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ এর কার্যালয়ের সামনে সড়ক দুর্ঘটনায় তিনি নিহত হন। ঘটনার সময় ইমতিয়াজ মোটরসাইকেলে করে রুবেল নামের এক বন্ধুর সঙ্গে বালসাবাড়ী বাজার থেকে উল্লাপাড়া আসছিলেন। ঘটনাস্থলে বিদ্যুতের খুঁটিবাহী একটি পিকআপ ভ্যানের সঙ্গে সংঘর্ষে তিনি মারা যান। সে সময় ময়নাতদন্ত ছাড়াই তাঁর লাশ দাফন করা হয়।

কিন্তু ইমতিয়াজের বাবা রজব আলীর দাবি, দুর্ঘটনার অনেক দিন পর তিনি জানতে পারেন যে, তাঁর ছেলের মৃত্যু নিছক সড়ক দুর্ঘটনা নয় বরং এটি একটি হত্যাকাণ্ড। এ বিষয়ে বিভিন্ন মাধ্যমে খবর পেয়েছেন বলেও জানান তিনি।

ফলে গত ৮ অক্টোবর তিনি সিরাজগঞ্জ জেষ্ঠ্য বিচারিক হাকিম আদালতে উল্লাপাড়া স্টেশন এলাকার বাসিন্দা দুই সহোদর ভাই রুবেল ও রাসেল এবং উল্লাপাড়া পশ্চিমপাড়া গ্রামের একরামুল ও মনিকে আসামী করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

জেষ্ঠ্য বিচারিক হাকিম আদালতের নির্দেশনায় সিরাজগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট ইফতেখার উদ্দিন শামীমের চিঠির প্রেক্ষিতে ময়নাতদন্তের জন্য লাশ উত্তোলন করা হয়েছে বলে জানান উল্লাপাড়ার সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. ফারুক সুফিয়ান।

নিহত ছাত্রলীগ নেতা সরকারি আকবর আলী কলেজের সম্মান ৩য় বর্ষের ছাত্র ছিলেন।

Comments

comments

About admin

Check Also

ইজতেমায় মোনাজাত চলছে

২১ জানুয়ারি ২০১৮, ১০:২৬ | আপডেট: ২১ জানুয়ারি ২০১৮, ১০:৩০ ঢাকা ও এর আশপাশের বিভিন্ন জায়গা থেকে লাখ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: