Home | রাজনীতি | ঢাকার ১২ আসনে যারা বিএনপির মনোনয়নে পাচ্ছেন

ঢাকার ১২ আসনে যারা বিএনপির মনোনয়নে পাচ্ছেন

বিগত কয়েকটি জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ঢাকা মহানগরীর আসনগুলোয় যাদের মনোনয়ন দেওয়া হয় তাদের চারজন মারা গেছেন। কয়েকজনের নাম বিগত আন্দোলনে নিষ্ক্রিয় থাকায় হাইকমান্ডের গুডবুকে নেই। এক নেতা রাজনীতি অনাগ্রহের কথা জানিয়ে দল থেকে পদত্যাগ করেছেন।

আসন বিশ্লেষণ এবং দলের নীতিনির্ধারকদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ঢাকা সিটি করপোরেশনের ১৫ আসনের অন্তত ১২টিতে নতুন প্রার্থী দেখা যাবে। এর মধ্যে কয়েকটিতে প্রার্থী হতে পারেন একেবারে নতুন। এরা অপেক্ষাকৃত তরুণ এবং এই প্রথম নির্বাচন করবেন।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বরচন্দ্র রায় আমাদের সময়কে বলেন, খন্দকার মাহবুবউদ্দিন আহমাদ, হামিদুল্লাহ খান, হান্নান শাহ এবং নাসিরউদ্দীন আহাম্মেদ পিন্টু মারা যাওয়ায় চার আসনে নতুন প্রার্থী আসবেÑ এটি তো বলার অপেক্ষা রাখে না। এ ছাড়াও কয়েকটি আসনে নতুন মুখ আসতে পারে। তবে এখনই স্পষ্ট করে কিছু বলা যাবে না। কারণ নির্বাচনের এখনো দেড় বছর বাকি। নির্বাচন ঘনিয়ে এলে অনেক কিছুই পরিবর্তন হতে পারে।

ঢাকা-৪ (শ্যামপুর) আসনে ২০০৮ সালের ২৯ ডিসেম্বর নির্বাচনে প্রার্থী ছিলেন আবদুল হাই। এবার তিনি মুন্সীগঞ্জ থেকে নির্বাচন করবেন। এ আসনে প্রার্থী হওয়ার দৌড়ে শক্ত অবস্থানে আছেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক তানভীর আহমেদ রবিন।

ঢাকা-৬ (সূত্রাপুর-কোতোয়ালি) বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান সাদেক হোসেন খোকা কয়েকবারের এমপি। তিনি নির্বাচন করতে পারলে অন্য বিতর্ক আসবে না। তবে সাজাপ্রাপ্ত হওয়ায় নির্বাচনে অযোগ্য হলে তার ছেলে ইশরাক হোসেনকে নির্বাচনী মাঠে দেখা যেতে পারে। পরিবারের কারো আগ্রহ না থাকলে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সাধারণ সম্পাদক কাজী আবুল বাশার এবং একই কমিটির সহ-সভাপতি নবীউল্লাহ নবীকে এ আসনে প্রার্থী করা হতে পারে।

ঢাকা-৭ (লালবাগ-চকবাজার) বিএনপির প্রয়াত নেতা নাসিরউদ্দীন আহাম্মেদ পিন্টুর স্ত্রী ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সহ-সভাপতি নাসিমা আক্তার কল্পনার মনোনয়ন অনেকটা নিশ্চিত। পিন্টু মারা যাওয়ায় তার স্ত্রী নির্বাচনী এলাকায় কাজ করছেন।

ঢাকা-৮ (রমনা) বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাসের নির্বাচনী এলাকা। এখানেই তার বাড়ি। তবে এর আগে সেখানে প্রার্থী ছিলেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি হাবিব-উন নবী খান সোহেল।

ঢাকা-৯ (মুগদা-সবুজবাগ) সেনাসমর্থিত সরকারের সমর্থনপুষ্ট ফখরুদ্দীন আহমদের তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সময়ে এখানে প্রার্থী ছিলেন বিএনপির স্বনির্ভর বিষয়ক সম্পাদক শিরিন সুলতানা। এবার এ আসনে মনোনয়ন পরিবর্তন হতে পারে।

ঢাকা-১০ (ধানম-ি) আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিষয়ক সম্পাদক ব্যারিস্টার নাসিরউদ্দিন অসীম হাইকমান্ড থেকে সবুজ সংকেত পেয়েছেন। এলাকায় কাজও করছেন। এর আগে প্রয়াত বিএনপি নেতা অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুবউদ্দিন আহমাদ নির্বাচন করেছিলেন।

ঢাকা-১২ (তেজগাঁও) ২০০৮ সালে প্রার্থী ছিলেন মহানগর উত্তর বিএনপির সহ-সভাপতি মোঃ সাহাবউদ্দিন। এর আগে বিএনপির সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান মোসাদ্দেক আলী ফালু এ আসনের এমপি ছিলেন। এ আসনে মনোনয়নে পরিবর্তন হতে পারে। তবে তা নিশ্চিত নয়। কারণ এই এলাকায় দীর্ঘদিন ধরে কাজ করছেন সাহাবউদ্দিন।

ঢাকা-১৩ (মোহম্মদপুর-আদাবর) মোয়াজ্জেম হোসেন আলালকে বরিশাল উজিরপুরে তার নির্বাচনী এলাকায় মনোনয়ন দেওয়া হতে পারে। এর আগে তিনি ওই আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন। তাকে সেখানে দেওয়া হলে এ আসনের মনোনয়নও পরিবর্তন হতে পারে।

ঢাকা-১৪ (মিরপুর-শাহআলী) এ আসনের সাবেক এমপি ও বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য এসএ খালেক বার্ধক্যজনিত কারণে নির্বাচন করবেন না। এখানে নতুন প্রার্থী পাবেন বিএনপি নেতাকর্মীরা।

ঢাকা-১৫ (কাফরুল) ২০০৮ সালে হামিদুল্লাহ খান এ আসনে নির্বাচন করেছিলেন। কয়েক বছর আগে তিনি মারা যান। নিশ্চিত করে বলা যায়, এখনে বিএনপির নতুন প্রার্থী আসছে।

ঢাকা-১৬ (পল্লবী) এর আগে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়া নির্বাচন করলেও এবার পরিবর্তন হতে পারে বলে গুঞ্জন রয়েছে। তবে এলাকায় কাজ করে যাচ্ছেন তিনি।

ঢাকা-১৭ (গুলশান-ক্যান্টনমেন্ট) প্রয়াত বিএনপি নেতা আ স ম হান্নান শাহ ২০০৮ সালে এ আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। এবার বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব) রুহুল আলম চৌধুরী প্রার্থী হতে পারেন।

ঢাকা-১৮ (উত্তরা) দলের তথ্যবিষয়ক সম্পাদক আজিজুল বারী হেলালকে আগেরবার প্রার্থী করা হয়েছিল। এবার তাকে তার নির্বাচনী এলাকা খুলনা থেকে মনোনয়ন দেওয়া হতে পারে। এ আসনে মনোনয়ন চাইছেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা সাবেক মন্ত্রী মেজর (অব) কামরুল ইসলাম এবং ঢাকা মহানগর উত্তর যুবদলের সভাপতি এসএম জাহাঙ্গীর।

About sarah

Check Also

‘আমাদের নেত্রী একবারও বিচার বিভাগের বিরুদ্ধে বক্তব্য দেন নাই’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিচার বিভাগের বিরুদ্ধে একবারও বক্তব্য দেননি বলে দাবি করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ …

Leave a Reply