Home | রাজনীতি | ইবিতে হল তল্লাসি; শিবিরের দুই কর্মী আটক

ইবিতে হল তল্লাসি; শিবিরের দুই কর্মী আটক

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে (ইবি) শিবিরের দুই কর্মীকে আটক করেছে পুলিশ। রোববার দুপুর তিনটার দিকে সাদ্দাম হোসেন হলে এক শিবির নেতাকে নাশকতার অভিযোগে মারধর করে ছাত্রলীগ। মারধোরের এক পর্যায়ে সে দৌড়ে পালিয়ে যায়। পরে পুলিশ, হল প্রশাসন ও প্রক্টরিয়াল বডির উপস্থিতে সাদ্দাম হোসেন হলের সামনে ও ভিতর থেকে দুই শিবির কর্মীকে আটক করা হয়। এরপর বিশেষ তথ্যের ভিত্তিতে হল তল্লাসি করে দেশীয় অস্ত্র, হকস্টিক ও রড উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনার পর থেকেই ক্যাম্পাসে সাধারণ শিক্ষার্থীদের মধ্যে আতঙ্কভাব বিরাজ করছে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, রোববার দুপুর দুইটার দিকে সাদ্দাম হোসেন হল শিবির নেতা শামীম ওসমান নামের একজন অস্ত্র বহন করছে এমন অভিযোগে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা তাকে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করে।

সে সন্দেহতীতভাবে এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টার করলে তাকে মারধোর করে তারা। তবে মারধোরের এক পর্যায়ে সে দৌড়ে পালিয়ে যায়। এরপরেই পুলিশ, প্রক্টরিয়াল বডি এবং ছাত্রলীগের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকসহ ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা সাদ্দাম হোসেন হলের সামনে অবস্থান নেয়। পরে পুলিশ ও প্রক্টরিয়াল বডি সাদ্দাম হোসেন হলের ওই শিবির নেতার (৪২৩ নং) রুমে তল্লাশি চালায়। তার রুম থেকে একটি হকিস্টিক, দুটি রড ও চারটি স্টাম্প উদ্ধার করা হয়। একই সময় ছাত্রলীগের কিছু নেতাকর্মীরা হলের ২৩৪ নং রুমের তালা ভেঙে তল্লাশি চালায়। তবে ওই রুম থেকে কিছুই পাওয়া যায়নি বলে জানা যায়। এরপর ছাত্রলীগের কিছু নেতাকর্মী গোলাম আজম নামের এক শিক্ষার্থীকে হলের ভিতর থেকে মারধোর করে পুলিশে সোপর্দ করে। তবে ওই শিক্ষার্থী শিবিরের রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ততা অস্বীকার করে। এর কিছু পরেই মাস্টার্সের পরীক্ষা শেষে করে সাদ্দাম হোসেন হলের সামনে থেকে যাওয়ার সময় আবুল হাসনাত নামের আরেক শিক্ষার্থীকে মারধোর করে পুলিশে সোপর্দ করে ছাত্রলীগ। তবে এ শিক্ষার্থী জিয়াউর রহমান হল শিবিরের রাজনীতিতে সক্রিয় বলে জানা যায়।

এ বিষয়ে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রতন শেখ বলেন, ‘ওই দুই ছাত্রকে পুলিশ হেফাজতে রাখা হয়েছে। আর রুমে তল্লাশি চালিয়ে কাউকে পাওয়া না গেলেও একটি হকিস্টিক, দুইটি রড ও চারটি স্টাম্প উদ্ধার করা হয়েছ।’ এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. অধ্যাপক মাহবুবর রহমান বলেন, ‘সাদ্দাম হোসেন হলের ৪২৩ নং কক্ষে অবৈধ জিনিসপত্র আছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে তল্লাশি চালানো হয়েছে। তবে বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিস্থিতি এখন সম্পূর্ণ স্বাভাবিক রয়েছে।’

About sarah

Check Also

‘আমাদের নেত্রী একবারও বিচার বিভাগের বিরুদ্ধে বক্তব্য দেন নাই’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিচার বিভাগের বিরুদ্ধে একবারও বক্তব্য দেননি বলে দাবি করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ …

Leave a Reply