Home | রাজনীতি | সময় হলে আপনারা সব কিছু জানতে পারবেন, আমিও বলব : কাদের

সময় হলে আপনারা সব কিছু জানতে পারবেন, আমিও বলব : কাদের

প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার সঙ্গে বৈঠক নিয়ে মুখ খুলেছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। ‘দীর্ঘক্ষণ বৈঠক হয়েছে, আরও আলোচনা হবে’ জানিয়ে তিনি বিস্তারিত কিছু প্রকাশ করতে চাননি।

রবিবার বিকালে রাজধানীতে এক অনুষ্ঠানে ওবায়দুল কাদের এ কথা বলেন। বঙ্গবন্ধুর বড় ছেলে শেখ কামালের ৬৮তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে রোলার স্কেটিং কমপ্লেক্সে এই আলোচনার আয়োজন করে সম্মিলিত ক্রীড়া পরিবার।

সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী অবৈধ ঘোষণার পূর্ণাঙ্গ রায়ে নানা মন্তব্যে ভীষণভাবে ক্ষুব্ধ সরকারি দল আওয়ামী লীগ। এই রায়ে সংবিধান ও বঙ্গবন্ধুর অবমাননার অভিযোগ এনে প্রতিবাদ কর্মসূচি পালন করছে ক্ষমতাসীন দল সমর্থক আইনজীবীরা।এর মধ্যে শনিবার রাতে প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার বাসভবনে তার সঙ্গে বৈঠক করেন ওবায়দুল কাদের। প্রায় দুই ঘণ্টাব্যাপী কথা হয় দুই জনের। পরদিন সকালে বিভিন্ন গণমাধ্যমে বৈঠকের খবর প্রকাশ হয়। তবে ওবায়দুল কাদের বিষয়টি জানান বিকালে।

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘আমি কালকে মাননীয় প্রধান বিচারপতির বাসায় গিয়েছিলাম। তার সাথে আমার দীর্ঘক্ষণ আলোচনা হয়েছিল। ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায়ে যে পর্যবেক্ষণ বা অবজারভেশন ছিল তা নিয়ে আমাদের পার্টির বক্তব্য জানিয়েছি। আরও অন্যান্য বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে দীর্ঘক্ষণ।’তবে আলোচনার ফলাফল সম্পর্কে কিছু জানাতে চাননি ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, ‘তার (প্রধান বিচারপতি) সঙ্গে আলোচনা হয়েছে, দীর্ঘক্ষণ। আরও আলোচনা হবে। আলোচনা শেষ হয়নি। শেষ হওয়ার আগে আমি কোনো মন্তব্য করতে চাই না। সময় হলে আপনারা সব কিছু জানতে পারবেন। আমিও বলব।’

এই বৈঠকের বিষয়ে সেভাবে জানতে না পারা গণমাধ্যমের দুর্বলতা ছিল বলে মনে করেন কাদের। বলেন, ‘বাংলাদেশে যে বিষয়টা এতো আলোচিত। এখন আপনারা জানতে এসেছেন। কিন্তু কালকে আপনাদের একটা দুর্বল দিক আমি খুঁজে পেলাম। আমি একটা বাড়িতে গিয়ে এতক্ষণ ছিলাম, কেউ খুঁজেও পেলেন না। কেউ নিউজটা দিতেও পারলেন না। যারা দিলেন, তারাও ঠিকঠাক মতো দিতে পারেন নাই।’

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর বাড়িতেই কাল আমি যাইনি। কেউ বলছেন যাওয়ার সময় গণভবন হয়ে, কেউ আবার বলছেন আসার সময় গণভবন। কোনটাই সঠিক নয়। আমি নেত্রীর সঙ্গে আজ সকালে দেখা করেছি। কাল এ বিষয়ে তাঁর আমার যোগাযোগ হয়েছে সেটা মোবাইলে।’

আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক হারুনুর রশীদের সভাপতিত্বে আরও উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য মোজাফফর হোসেন পল্টু, আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার বেসরকারি খাত উন্নয়ন বিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ, বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন, বাফুফে সভাপতি কাজী সালাহউদ্দিন, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, মুহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, সাংস্কৃতিক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল, কার্যনির্বাহী সদস্য রিয়াজুল কবির কাওছার প্রমুখ

About staff reporter

Check Also

‘আমাদের নেত্রী একবারও বিচার বিভাগের বিরুদ্ধে বক্তব্য দেন নাই’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিচার বিভাগের বিরুদ্ধে একবারও বক্তব্য দেননি বলে দাবি করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ …

Leave a Reply