Home | আন্তর্জাতিক | সিরিয়ায় বিমান-রকেট হামলায় নিহত ৯১

সিরিয়ায় বিমান-রকেট হামলায় নিহত ৯১

সিরিয়ার পূর্বাঞ্চলীয় ঘৌতায় সরকার বাহিনী ও রাশিয়ার বিমান হামলায় কমপক্ষে ৫৬ জন নিহত হয়েছে। স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন হোয়াইট হেলমেট বিদ্রোহী অধ্যুষিত এলাকায় বিমান হামলায় হতাহতদের উদ্ধার ও চিকিৎসা সহায়তায় কাজ করে যাচ্ছে। সংগঠনটির তরফ থেকেই বিমান হামলায় নিহতের সংখ্যা নিশ্চিত করা হয়েছে। খবর আল জাজিরা।
সোমবার রাতে কমপক্ষে ১৬ শিশু এবং চার নারী নিহত হয়েছে। তারা ইরবিন শহরের একটি স্কুলে আশ্রয় নিয়েছিল।বিমান হামলা স্কুলে আঘাত হানলে হতাহতের ঘটনা ঘটে।

এদিকে রাজধানী দামেস্কের সরকার নিয়ন্ত্রিত একটি জেলায় রকেট হামলায় কমপক্ষে ৩৫ বেসামরিক নিহত হয়েছে। একটি ব্যস্ত মার্কেটে ওই হামলা চালানো হয়েছে।
পুলিশ সানা নিউজ এজেন্সিকে জানিয়েছে, পূর্বাঞ্চলীয় ঘৌতা থেকেই কাসকৌলে ওই রকেট হামলা চালানো হয়েছে। ওই হামলার ঘটনায় সন্ত্রাসীদের দায়ী করা হচ্ছে। পশ্চিমাঞ্চলে পৃথক একটি হামলার ঘটনায় ছয় বেসামরিক আহত হয়েছে।
সিরীয় সরকার এবং তাদের মিত্র বাহিনীর ক্রমাগত হামলায় ১ হাজার ৪শ বেসামরিক নিহত হয়েছে। ওই এলাকা থেকে পালাতে বাধ্য হয়েছে আরও ৫০ হাজার মানুষ।
২০১৩ সালের মাঝামাঝি সময় থেকেই পূর্বাঞ্চলীয় ঘৌতার দখল করে নেয় বিদ্রোহীরা। তারপর থেকেই সেখানে বিদ্রোহীদের সঙ্গে সরকার বাহিনীর লড়াই চলছে। এক মাস ধরে ওই অঞ্চলে অভিযান চালাচ্ছে রাশিয়া সমর্থিক সিরীয় বাহিনী।

জাতিসংঘ বলছে, পূর্বাঞ্চলীয় ঘৌতা থেকে বিদ্রোহীদের হঠিয়ে দিতে সরকার বাহিনী যে অভিযান শুর করেছে তাতে কয়েকশ মানুষ নিহত হয়েছে। তবে মানবাধিকারকর্মী ও পর্যবেক্ষক সংস্থাগুলো বলছে, নিহতের সংখ্যা আরও অনেক বেশি। বেশ কিছু প্রতিবেদনে বলা হচ্ছে, নিহতের সংখ্যা প্রায় ১ হাজার ৪শ।
শনিবার ঘৌতা থেকে কমপক্ষে ১০ হাজার মানুষ পালিয়েছে। সেখানে বিমান হামলা অব্যাহত রয়েছে। শুক্রবার কাফর বাতনা জেলায় ৪৬ বেসামরিক নিহত হয়েছে। এদের মধ্যে ছয়জনই শিশু। শুক্রবার সকালের দিকে পূর্বাঞ্চলীয় দামেস্ক শহর থেকে ১২ থেকে ১৩ হাজার মানুষ পালিয়ে গেছে।

যুদ্ধ-সংঘাতের কারণে এসব এলাকায় আটকে পড়া লোকজন খাবার ও মানবিক সংকটের মধ্যে দিন কাটাচ্ছে। প্রায় ৪ লাখ মানুষ তীব্র খাদ্য সংকট ও চিকিৎসা সামগ্রীর অভাবে রয়েছেন। রেড ক্রস জানিয়েছে, পূর্বাঞ্চলীয় ঘৌতার দৌমা জেলায় প্রায় ২৫ লরি খাদ্য সহায়তা পৌঁছেছে।
সাত বছর শেষ করে আটে পা রেখেছে সিরিয়া যুদ্ধ। কিন্তু সেখানকার পরিস্থিতির উন্নতি হওয়ার কোনো লক্ষণই নেই। যুদ্ধ-সংঘাতে সাড়ে চার লাখের বেশি সিরীয় নাগরিক প্রাণ হারিয়েছে। আরও কয়েক লাখ মানুষ বাস্তুহারা হয়েছে। সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাসার আল আসাদ বাহিনী প্রায় ৮০ শতাংশ এলাকার নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে।
টিটিএন/এমএস

Comments

comments

About admin

Check Also

সৌদি রাজ প্রাসাদের কাছে গোলাগুলি, বহু হতাহতের আশঙ্কা

সৌদি আরবের রিয়াদে রাজ প্রাসাদের কাছে গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে। এতে বহু হতাহতের আশঙ্কা করা হচ্ছে। শনিবার রাতে এ গোলাগুলির ঘটনা ঘটে। বিস্তারিত আসছে...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *